বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল, ২০১৯ | | ১৯ শা'বান ১৪৪০
banner

বনানী অগ্নিকাণ্ড: তাসভির-ফারুক ৭ দিনের রিমান্ডে

প্রকাশ : ৩১ মার্চ ২০১৯, ০৫:০০ পিএম

বনানী অগ্নিকাণ্ড: তাসভির-ফারুক ৭ দিনের রিমান্ডে

রাজধানীর বনানীতে এফআর টাওয়ারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় ভবনের বর্ধিত অংশের মালিক তাসভির উল ইসলাম (৬৬) ও ভবনের জমির মালিক প্রকৌশলী এস এম এইচ আই ফারুকের বিরুদ্ধে (৭৫) সাতদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।


রোববার দুপুরে মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য ডিবি পুলিশের পরিদর্শক জালাল উদ্দিন রোববার অভিযুক্তদের আদালতে উপস্থিত করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। অপরদিকে আসামিপক্ষের আইনজীবীরা তাদের জামিন আবেদন করেন।


ঢাকা মহানগর হাকিম সাদবীর ইয়াছির আহসান চৌধুরী উভয়পক্ষের শুনানি শেষে তাসভির উল ইসলাম ও এস এম এইচ আই ফারুকের বিরুদ্ধে সাতদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।


মামলায় তাসভির উল ইসলাম ও এস এম এইচ আই ফারুকের বিরুদ্ধে অসৎ উদ্দেশ্যে পরস্পর জোগসাজশে মানুষের জানমালের ক্ষতি, অবহেলা ও তাচ্ছিল্যপূর্ণ কার্যকলাপের ফলে অপরাধজনক অগ্নিকাণ্ডে মানুষের প্রাণহানি, মারাত্মক জখমসহ সম্পদের ক্ষতিসাধনের অভিযোগ আনা হয়।


বনানীর এফআর টাওয়ারের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় বনানী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মিল্টন দত্ত বাদী হয়ে মামলাটি করেন।


এর আগে শনিবার দিবাগত রাতে তাসভির উল ইসলাম ও এস এম এইচ আই ফারুককে গ্রেফতার করে মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। রাতেই মামলার তদন্তভার ডিবি পুলিশকে দেয়া হয়। মামলার নতুন তদন্ত কর্মকর্তা ডিবির ইন্সপেক্টর জালাল।


রোববার দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচে আয়োজিত এক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীএ অভিযোগ করেছেন, প্রধানমন্ত্রী এখন কৌশল নিয়েছেন যা কিছু ঘটবে, বিএনপির ওপর চাপাও। তাসবিরুল ইসলাম কুড়িগ্রাম বিএনপির সভাপতি, এটা সত্য কথা। বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্যও তিনি। কিন্তু ওই বিল্ডিংয়ের সঙ্গে তাসবিরুল ইসলামের সম্পর্ক কী? ওইটার তো তিনি জমির মালিক নন, সে তো ডেভেলপার নন, তাকে গ্রেফতার করলেন কেন? গ্রেফতার করেছেন এই কারণেই যে, জনগণ দেখানো যা কিছু হয়, যা কিছু ঘটে, তার সঙ্গে বিএনপি জড়িত।


উনি তো তিনটি ফ্ল্যাট কিনেছেন রূপায়নের কাছ থেকে। রূপায়নের মালিক কে? রূপায়নের মালিক সরকার সমর্থিত। তাছাড়া তাসবিরুল যখন ফ্ল্যাট কিনেছেন, তখন বিল্ডিং হয়ে গেছে। অথচ তাসবিরুল দায়ী হয়ে গেলেন, তিনি গ্রেফতার হয়ে গেলেন। আর সরকারের সঙ্গে জড়িত এফআর টাওয়ারের ডেভেলপার, মালিক নির্বিগ্নে ঘুরে বেড়াচ্ছে যোগ করেন রিজভী।


এদিকে এ ঘটনার আরেক এজাহারধারী আসামি রূপায়ন গ্রুপের চেয়ারম্যান লিয়াকত আলী খান মুকুল। তাকে গ্রেফতারের বিষয়ে জানতে চাইলে এডিসি গোলাম সাকলাইন সিথিল বলেন, তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা অবশ্যই চলছে। তবে নির্ভরযোগ্য সূত্রে আমরা জানতে পেরেছি, রূপায়ন গ্রুপের চেয়ারম্যান দেশ থেকে পালিয়ে গেছেন।


প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা ৫৫ মিনিটে ২৩ তলা বনানীর এফ আর টাওয়ারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ফায়ার সার্ভিসের ২৫টি ইউনিট আগুন নেভানো ও হতাহতদের উদ্ধারের কাজ করে। পাশাপাশি সেনাবাহিনী, বিমানবাহিনী, নৌবাহিনী, পুলিশ, র‍্যাব, রেড ক্রিসেন্টসহ ফায়ার সার্ভিসের প্রশিক্ষিত অনেক স্বেচ্ছাসেবী অগ্নিনির্বাপণ ও উদ্ধার কাজে অংশ নেয়। প্রায় সাড়ে ছয় ঘণ্টা চেষ্টার পর রাত ৭টায় আগুন নেভানো সম্ভব হয়। এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত ২৬ জন মারা গেছেন।


এ ঘটনায় শনিবার বনানী থানায় অবহেলাজনিত মৃত্যু সংঘটনের অভিযোগে একটি মামলা করা হয়। মামলার এজাহারে আসামি হিসেবে তাসভির উল ইসলাম, জমির মালিক প্রকৌশলী এসএমএইচআই ফারুক (৬৫) ও রূপায়নের চেয়ারম্যান লিয়াকত আলী খান মুকুলের নাম উল্লেখ করা হয়েছে।

সর্বশেষ সংবাদ