রোববার, ২৪ মার্চ, ২০১৯ | | ১৭ রজব ১৪৪০
banner

ইভিএম হলে রাতে বাক্স ভরার সুযোগ থাকবে না : সিইসি

প্রকাশ : ০৮ মার্চ ২০১৯, ০৩:১৩ পিএম

ইভিএম হলে রাতে বাক্স ভরার সুযোগ থাকবে না : সিইসি

জনগণই এদের মালিক। তারা ভোট দিয়ে চলে যাবেন, আমরা ভোট নেয়ার ব্যবস্থা করব। এখানে সমস্যার তো কিছু দেখি না। কথাগুলো বলেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদা।

শুক্রবার আগারগাঁওয়ের ইটিআই ভবনে পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে প্রশিক্ষকদের প্রশিক্ষণ (টিওটি) কর্মশালায় তিনি একথা বলেন।

সিইসি বলেন, ‘ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট হলে আগের রাতে ভোটবাক্স ভরে রাখার সুযোগ থাকবে না।

তিনি বলেন, সমাজে নানা রকম অসাধু প্রক্রিয়ার মাধ্যমে জালিয়াতির চেষ্টা করা হয়। এ ধরনের জালিয়াতি প্রক্রিয়া শুরু হয়, সেটাকে প্রতিহত করতে আবার একটি আইন বা নিয়ম তৈরি হয়। ভোট দিতে হতো আগে সামনে, তা না দিয়ে এখন ভোট দিতে হয় বাক্সে। তারপরে হলো যিনি ভোটার না ভোটার তালিকায় তার নাম দেয়া। এরপরে আসলো ছবিযুক্ত ভোটার, এখন তাতেও কাজ হয় না।

নূরুল হুদা বলেন, সমাজের মধ্যে একটার পর একটা অনিয়ম অনুপ্রবেশ করে, আবার সেটি প্রতিহত করতে একটা পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হয়। আমরা এখন চিন্তা করছি, এগুলো দরকার নেই। ইভিএম শুরু করে দেব, তাহলে সেখানে আর রাতে বাক্স ভর্তি করার সুযোগ থাকবে না।

তিনি বলেন, পরিবেশ পরিস্থিতি ক্রমান্বয়ে অবনতির দিকে যাচ্ছে এবং আইন আরও কঠোর হচ্ছে। এখন আমাদের আচরণ বিধি তৈরি করতে হয়, নির্বাচনে আইন প্রণয়ন করতে হয়, আমাদের কঠোর পদক্ষেপ নিতে হয়। তারপরও সামাল দেয়া যায় না। এই পরিস্থিতিতে আছে আমরা এ অবস্থা থেকে উত্তরণের দরকার।

কর্মকর্তাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, যারা নির্বাচনের দায়িত্বে থাকবেন তাদের কোনো পক্ষ নেই। তাদের দায়িত্ব সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন পরিচালনা করা। কে কোন দল করে, কে কোন মত করে, কে কার আত্মীয়, কার প্রভাব বেশি, কার কি রাজনীতি পরিচয় এ সবগুলো বিবেচ্য বিষয় হবে না। সম্পূর্ণভাবে নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত করা আপনাদের দায়িত্ব।

সিইসি বলেন, নির্বাচন হবে স্বচ্ছ, এতে গোপনীয় কিছু নেই। শুধু গোপনীয় একটি কক্ষ আছে, যেখানে ভোটার গিয়ে ভোট দেবে। এ ছাড়া নির্বাচন পরিচালনার সব তথ্য জনগণের জন্য উন্মুক্ত।

সর্বশেষ সংবাদ