মঙ্গলবার, ১৮ জুন, ২০১৯ | | ১৪ শাওয়াল ১৪৪০
banner

জনপ্রতিনিধি ও সমাজসেবকসহ অর্ধশত লোকের সুপারিশ

তালতলীতে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানীর অভিযোগ

প্রকাশ : ১১ জানুয়ারী ২০১৯, ০৬:২৬ পিএম

 তালতলীতে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানীর অভিযোগ

মল্লিক মো.জামাল তালতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি :বরগুনার তালতলীতে ১মাস ৫দিন আগের সাজানো ঘটনায় মিথ্যা মামলা দিয়ে হাজত খাটানোসহ হয়রানী করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। জনপ্রতিনিধি ও সমাজসেবকসহ এলাকার অর্ধশত লোকের স্বাক্ষরিত সুপারিশ এনে বুধবার তালতলী প্রেসকাবে এসে এমন অভিযোগ করেন উপজেলার ইদুপাড়া গ্রামের ফুল মিয়া। 

লিখিত অভিযোগে ও এলাকাবাসীর স্বাক্ষরিত কপিতে জানা গেছে, বরগুনার বাবুগঞ্জের ইসমাইল মোল্লা তার ৫ম স্ত্রী রাজিয়া বেগম ও ১৪ বছরের কন্যা ফাতিমাকে নিয়ে তালতলী উপজেলার ছোটআমখোলা গ্রামের আশ্রায়ন প্রকল্পের একটি রুমে বসবাস করে আসছে। আশ্রায়নে থেকে মেয়েটি উঠতি বয়সী ছেলেদের সাথে অর্থের বিনিময় হরামিশা অপকর্মে লিপ্ত থাকে। এ অপকর্মের দুর্নাম এলাকায় তাদের ছড়িয়ে পরে। পার্শ্ববর্তী ইদুপাড়া গ্রামের জেলে ফুলমিয়া  তাদের অপকর্মের কথা বললে ঐ মেয়ের মা রাজিয়া বেগম বাদী হয়ে তার কন্যা ফাতিমাকে ধর্ষনের অভিযোগে ফুলমিয়া ও তার স্ত্রী বিউটি বেগমকে আসামী করে থানায় মিথ্যা মামলা দায়ের করে। এ মামলায় ফুল মিয়া প্রায় ১১মাস জেলহাজতে থাকার পর হাইকোর্টের আদেশে জামিনে রয়েছেন। 

মামলায় উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ৯ সেপ্টেম্বর দিন দুপুরে ছোটআমখোলা গ্রামের ওয়াপদা রাস্তার উপর থেকে ফুল মিয়া ফাতিমাকে অপহরন করে নিয়ে তার বশত ঘরে রেখে জোড়পূর্বক ধর্ষন করে। অথচ ফুল মিয়ার বাড়ীতে একই উঠানে ৫টি ঘর রয়েছে। ফুল মিয়ার ঐ ঘরে তখন তার স্ত্রী, ১৭ ও ১২ বছরের ২টি কন্যা এবং ১০ বছরের ১টি পুত্র সন্তান ছিল। ৯ সেপ্টেম্বরের এ ঘটনায় ১৪ অক্টোবর থানায় মামলা হলেও পুলিশের দেয়া এজাহার ও স্বাক্ষীদের বক্তব্যের সাথে কোন মিল পাওয়া যাচ্ছেনা।  

সর্বশেষ সংবাদ