মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৮ | | ২ রবিউস সানি ১৪৪০
banner

খোকার মতোই জনপ্রিয় হয়ে উঠছেন ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন

প্রকাশ : ২৩ নভেম্বর ২০১৮, ০২:২৯ পিএম

খোকার মতোই জনপ্রিয় হয়ে উঠছেন ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন

পুরাতন ঢাকার বংশালের একাংশ, সূত্রাপুর, কোতোয়ালি, ওয়ারি আর গেন্ডারিয়া মিলিয়ে ঢাকা-৬ নির্বাচনী আসন। এই আসনে বিএনপির প্রার্থী ছিলেন ঢাকার সাবেক মেয়র জনপ্রিয় নেতা সাদেক হোসেন খোকা। তিনি অসুস্থতার কারণে দীর্ঘদিন ধরে যুক্তরাষ্ট্রে আছেন। যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক শহরে দীর্ঘদিন ধরে ক্যান্সরের চিকিৎসা নিচ্ছেন তিনি। এছাড়া সরকারের দায়ের করা একটি মামলায় কারাদণ্ডের সাজা পাওয়ায় আগামী নির্বাচনে প্রার্থী হতে পারছেন না ঢাকা-৬ আসন থেকে একাধিকবার নির্বাচিত এই বীর মুক্তিযোদ্ধা। এছাড়া আগামী ২৮ নভেম্বর সাদেক হোসেন খোকার বিরুদ্ধে আরেকটি মামলার রায় ঘোষণার জন্য দিন ধার্য রেখেছে ঢাকার একটি আদালত। এসব পরিস্থিতিতে দলের নেতাকর্মী ও স্থানীয় বিশিষ্টজনের অনুরোধে সাদেক হোসেন খোকার বড় ছেলে ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন পুরান ঢাকার এই আসনটি থেকে বিএনপির নির্বাচনী মনোনয়ন ফরম জমা ও সাক্ষাতকার সম্পন্ন করেছেন। বিএনপির রাজনীতিতে পিতার মতোই জনপ্রিয় হয়ে উঠছেন ইশরাক হোসেন।

ইশরাক হোসেনের বিএনপি থেকে মনোনয়ন পাওয়ার সম্ভাবনায় পুনরায় উজ্জীবিত পুরান ঢাকার স্থানীয় নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষ। কেননা তার মধ্যে তার পিতা সাদেক হোসেন খোকার ছায়া খুঁজে পেয়েছেন তারা। এরই মধ্যে তার বলিষ্ঠ রাজনৈতিক বিভিন্ন বক্তব্য গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন যুক্তরাজ্যের অন্যতম শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হার্ডফোর্ড শায়ার ইউনিভার্সিটি থেকে মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে সর্বোচ্চ ডিগ্রী অর্জন করেছেন। লন্ডনে থাকাকালে তিনি জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল যুক্তরাজ্য শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন দীর্ঘদিন। এছাড়া আওয়ামী লীগ সরকারের ঢাকা বিভক্তির সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে দেশে ও প্রবাসে প্রবল জনমত গড়ে তুলেছিলেন তিনি। রাজনৈতিক উদ্দেশ্য নিয়েই তিনি গত তিন বছর আগে দেশে ফেরেন। সেই থেকে তিনি ঢাকা-৬ আসনের পরবর্তী এমপি প্রার্থী হিসেবে নিজকে জনপ্রিয় করে তুলেছেন।

ঢাকা-৬ আসনের বিএনপির নেতা–কর্মীরা বলছেন, পারিবারিক অবদান ও প্রভাবের কারণে বিএনপির প্রার্থী হিসেবে এগিয়ে আছেন ইঞ্জি: ইশরাক হোসেন। তারা বলছেন, পারিবারিক প্রভাব ও অবদান বিবেচনায় নিয়ে এই আসন থেকে ইশরাক হোসেনকে মনোনয়ন দেবে বিএনপি।

ঢাকা-৬ আসন থেকে বিএনপি থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী আছেন প্রায় ১১জন। তাদেরই একজন মকবুল হোসেন খান বলেন, ‘নিজে মনোনয়ন ফরম তুললেও এই আসন থেকে সাদেক হোসেন খোকার বড় ছেলে ইশরাক হোসেনই মনোনয়ন পাবেন বলে তিনি বিশ্বাস করেন।

৪৪ নম্বর ওয়ার্ড কমিশনার ও সূত্রাপুর থানা বিএনপির সভাপতি এমএ সাহেদ মন্টু বলেন, এবারের নির্বাচনে আমাদের প্রার্থী ইশরাক হোসেন। আমরা বর্তমানে তিন (গেণ্ডারিয়া, সূত্রাপুর ও ওয়ারী) ওয়ার্ডের কমিশনার ও সাবেক দুই কমিশনার তাকে এরই মধ্যে সমর্থন দিয়েছি। ইশরাক তরুণ ও মেধাবী প্রার্থী। তার জন্য সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করছি। আশা করি, নির্বাচনে তিনি বিজয়ী হবেন।

৪৫ নম্বর ওয়ার্ড কমিশনার ও গেণ্ডারিয়া থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির বলেন, এই আসন থেকে এবার বিএনপির অনেকেই মনোনয়ন কিনেছেন। এর মধ্যে খোকা ভাইয়ের ছেলে ইঞ্জি: ইশরাক হোসেন সবচেয়ে যোগ্য প্রার্থী। তাই আমরা তাকে সমর্থন দিয়েছি।

প্রায় তিন বছর আগে দেশে ফিরে এলাকার সাধারণ মানুষের সেবার পাশাপাশি রাজনৈতিক মামলা-হামলার শিকার নেতাকর্মীদের সহায়তা করছেন ইশরাক হোসেন। পাশাপাশি তার বাবা সাদেক হোসেন খোকার প্রতিষ্ঠিত শিক্ষা ও সামাজিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে এগিয়ে নেওয়ার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি।

ইশরাক হোসেন বলেন, ঢাকা-৬ আসনের নির্যাতিত নীপিড়িত বিএনপির নেতা-কর্মীদের পাশে থেকে কাজ করছি দীর্ঘ দিন ধরে। দল আমাকে মনোনয়ন দিলে নির্বাচিত হয়ে বাবার পথ অনুসরণ করে আমিও এই এলাকার উন্নয়নে সর্বশক্তি নিয়োগ করব। এ ছাড়া আমার অর্জিত দেশীয় ও আন্তর্জাতিক প্রাতিষ্ঠানিক জ্ঞান ও বাস্তবিক অভিজ্ঞতা দিয়ে দেশের উন্নয়নে প্রযুক্তির যাযোপযুক্ত ব্যবহার বাড়াব।’ 

ইশরাক হোসেন আরও বলেন, গেণ্ডারিয়া, ওয়ারী ও সূত্রাপুর থানা নিয়ে গঠিত এই নির্বাচনী এলাকার উন্নয়নে আমার বাবা নিরলস চেষ্টা করেছেন। ঘরে ঘরে মানুষকে চাকরি, ব্যবসা বা অন্য কোনোভাবে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করেছেন। অনির্বাচিত সরকারের অধীনে এখন এলাকার মানুষ অভিভাবকশূন্য। নির্বাচিত হয়ে তাদের এই শূণ্যতা থেকে আবারো পূর্ণতায় নিয়ে যেতে চাই আমি।

২১ নভেম্বর গুলশানের দলীয় কার্যালয়ে মনোনয়নের ইন্টারভিও দিয়ে বেরিয়ে এসে গণমাধ্যমের সাথে কথা বলেন ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন। তিনি সে সময় বলেন, “আমাদের দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দেশনায়ক তারেক রহমান আজ আমাদের নির্বাচনী বিভিন্ন দিক নির্দেশনা দিয়েছেন। যাকেই দল মনোনয়ন দেয় আমরা তার পক্ষে সবাই কাজ করব। এবং ধানের শীষের বিজয় সুনিশ্চিত করব। আগামী নির্বাচনে যে কোন পরিস্থিতি হোক না কেন আমরা মাঠে থাকব। প্রতিকূল সমস্ত শক্তি মোকাবিলা করে দেশে গণতন্ত্রকে সুপ্রতিষ্ঠিত করব।“

দল কেন আপনাকে মনোনয়ন দিবে? এই প্রশ্নে জবাবে ইশরাক হোসেন বলেন, “আমি ঢাকা-৬ এর সন্তান। আমার জন্ম সেখানেই। দলের নেতা-কর্মীসহ দলমত নির্বিশেষে সাধারণ জনগণ আমার বাবার ভক্ত ছিলেন। তারা সবাই এখন আমকে চায়। আমার বাবার অসমাপ্ত কাজগুলো দলক্ষমতায় আসলে সেগুলো পূরণ করব, ইনশাআল্লাহ।“


সর্বশেষ সংবাদ