মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৮ | | ২ রবিউস সানি ১৪৪০
banner

শেখ হাসিনাকে জেলা ছাত্রলীগ নেতার খোলা "চিঠি

প্রকাশ : ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ১১:৩৬ এএম

শেখ হাসিনাকে জেলা ছাত্রলীগ নেতার খোলা

খোলা চিঠি"

জাহাঙ্গীর আলম শামস।

বরাবরে 

মাননীয় সভাপতি 

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ, 

কেন্দ্রীয় কমিটি।


বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম


মাননীয় নেত্রী

শুরুতে আমার সালাম গ্রহণ করবেন

আসসালামু আলাইকুম 

আশাকরি আপনি ভাল আছেন 

-- আমার পত্রের শুরুতে, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, ইতিহাসের মহানায়ক জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং ১৫ আগস্ট ঘাতকের বুলেটে নিহত শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব সহ জাতিরপিতার পরিবারের সকল শহীদের এবং জাতীয় চার নেতা সেই সাথে বাংলার সেই সব সূর্য সন্তানদের যারা ভাষা আন্দোলনে শহীদের শ্রদ্ধাভরে স্মরন করছি। 


মাননীয় নেত্রী

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতেগড়া ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের একজন কর্মী ও একজন তরুণ ভোটার হিসেবে আপনার নিকট একখানা খোলা চিটি লিখলাম, আমার চিঠির আপনার নিকট আর্থিক সাহায্য সহযোগিতা চেয়ে নয়। চিঠির উদ্দেশ্য

"কক্সবাজার সদর-রামু ৩ আসনের আওয়ামীলীগের মনোনয়ন" 

মাননীয় নেত্রী

কক্সবাজারের আওয়ামী রাজনীতির

 অবস্থা সম্পর্কে নিশ্চয় অবগত আছেন 

এইখানে বর্তমান মনোনয়ন আগ্রহী প্রার্থীদের কারো কারো সাথে জামায়াত-শিবিরের প্রেতাত্মারা দলে ভিড়েছে।

আবার কখনো তার ছত্রছায়ায় ইউনিয়ন পর্যায়ে নৌকার প্রার্থীদের হারিয়ে নিজ লোকদের জয়ী করেছেন।

মাননীয় নেত্রী

চট্রগ্রামের আলোচিত নির্মম হত্যাকান্ড ছাত্রলীগের এইট মার্ডারের আসামী এক নেতার ছত্রছায়ায় আপনার সংসদে প্রবেশ করেন নেত্রী একবার ভেবে দেখুন কতটা ফরমালিনের বিস্তার ঘটলে ছাত্রলীগ নেতার হত্যার অভিযুক্তরা আওয়ামী সংগঠনের পতকাতলে স্থান পায।।

মাননীয় নেত্রী

আসছি মনোনয়নের প্রসঙ্গে 

আপনার বিচক্ষণতায় পরিচালিত সংগঠনের  কক্সবাজার সদর- রামু ৩ আসনের  সাধারণ জনগন ও তরুণ ভোটার দের এইবারের আহবান তারুণ্য নির্ভর সৎ একজন প্রার্থীকে মনোনীত করলে আমরা আপনার নিকট চিরকৃতজ্ঞ থাকবো।

 মাননীয় নেত্রী

আমার ও আমাদের মত তরুণদের পক্ষ থেকে এইবার একজন প্রার্থীর মনোনয়নের  জন্যে আপনার নিকট  আকুতি জানাচ্ছি

যিনি কক্সবাজারের সভ্রান্ত রাজনৈতিক পরিবারে জন্ম চাচা বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ট সহচর

৭০ এর নির্বাচনে নির্বাচিত গণপরিষদের সদস্য, বাবা ছিলেন চট্টগ্রাম কমার্স কলেজের ছাত্রলীগ মনোনীত জিএস এবং ছাত্রলীগ মনোনীত ছাত্র সংসদের ভিপি।

পারিবারিকভাবে রাজনৈতিক আবহে বেড়ে

উঠা একজনের সম্পর্কেই বলছি

যিনি অকালে নিজের বাবা- মা কে হারিয়ে

 নিজের সংগঠনের নেতাকর্মী ও নির্বাচনী এলাকার গরীব মেহনতী মানুষকে নিজের আপন করে নিয়েছেন যার বেশিরভাগ সময় কাটে সংগঠনিক কার্যকলাপে

 তিনি কক্সবাজার ৩ সদর-রামু আসনের নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী হয়েছেন তিনি

কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি

ইশতিয়াক আহমেদ জয়।


মাননীয় নেত্রী

ইশতিয়াক আহমেদ জয়ের সামাজিক উদ্যোগগুলো সবমহলে বেশ প্রশংসিত হয়েছে। ছাত্ররাজনীতির সাথে যুক্ত কর্মীদের দারুণভাবে অনুপ্রাণিত করেছে, নতুন পথ দেখিয়েছে।

তার প্রশংসিত উদ্যোগগুলোর মধ্যে রয়েছে— গ্রামে পাড়ায় মহল্লায় বাড়ি উঠানে গিয়ে গিয়ে আওয়ামী সরকারের অবদান ও "শেখ হাসিনার উন্নয়নের গল্প" শুনিয়েছে

'আমাদের সমুদ্র রাখিব বিশুদ্ধ' স্লোগান ধারণ করে কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতে পরিচ্ছনতা কর্মসূচি পালন করেন,

 স্বাধীনতা দিবস ঘিরে শিশুদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ প্রতিযোগিতার আয়োজন, 'বঙ্গবন্ধু থেকে শেখ হাসিনা' নামক ব্যতিক্রমী রাজনৈতিক কর্মশালার আয়োজন করেন, মাদকমুক্ত কক্সবাজার গড়তে যুদ্ধ ঘোষণা দিয়ে স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে মাদকবিরোধী প্রচারণা, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ২১০ দিন ফ্রি স্বাস্থ্যসেবা প্রদান উল্লেখযোগ্য।

মাননীয় নেত্রী

এই ইশতিয়াক আহমেদ জয়

কখনো রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্প, কখনো পরিচ্ছন কক্সবাজার গড়ার জন্য অভিযানে, কখনো কোরবানির ঈদে বর্জ্য অপসারণ, কখনো তিনি ছাত্রদের যুক্তিক আন্দোলনে একাত্মা ঘোষনা করে রাজপথে, কখনো জামাত বিএনপির অবৈধ হরতাল ঠেকাতে রাজপথে,

কখনো তিনি এতিম দুস্থদের সাথে,

কখনো তিনি গরীব দুঃখী মেহনতী মানুষের খোঁজ নিতে ছুটে চলে গ্রামের মেঠো পথে, কখনো তিনি নৌকার বিজয়ের লক্ষে নরলস প্রচারণায়, কখনো তিনি নিরলস আন্দোলন সংগ্রামে মিছিলে শ্লোগানে রাজপথে ছুঠে চলেন।।

মাননীয় নেত্রী

আমরা হাজারো ছাত্রলীগের নেতাকর্মী ও তরুণ ছাত্রসমাজ মনে করছি আপনার মাধ্যমে দলীয় নৌকার মনোনীত প্রার্থী হলে ইশতিয়াক আহমেদ এইবার তারুণ্যের শক্তি নিয়ে তারুণ্যের উজ্জ্বল আলো জড়িয়ে এই কক্সবাজারের বিএনপি- জামায়াতের দূর্গে আঘাত করে নৌকার বিজয় ছিনিয়ে আনবে ইনশাআল্লাহ।

সর্বশেষ সংবাদ