১৮, সেপ্টেম্বর, ২০১৯, বুধবার

তালায় এসিডদগ্ধ আল আমিনের অর্থাভাবে চিকিৎসেবা বন্ধ হবার পথে

এস এম বাচ্চু,তালা(সাতক্ষীরা)প্রতিনিধি:

তালায় ঘুমন্ত অবস্থায় বন্ধ করে এসিডদ্ধ আল আমিন গাজীকে অর্থাভাবে চিকিৎসা বন্ধ হবার পথে ।

জানাযায়,গত ১৬ আগস্ট খুলনা মেডিকেল কলেজের বার্ণ ইউনিট থেকে ঢাকা মেডিকেলের বার্ণ ইউনিটে নেয়া হয়েছে। কিন্তু তার অবস্থা সংকটপন্ন। এমন অবস্থায় তার সুষ্ঠ চিকিৎসা কার্যক্রম এগিয়ে নিতে অনেক টাকার প্রয়োজন। অর্থাভাবে ছেলের চিকিৎসা কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে বলে দাবি করে আলা আমিনের পিতা তার চিকিৎসা সহযোগিতায় বিত্তবানদের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

প্রকাশ, উপজেলার জালালপুর ইউনয়নের চরকানাইদিয়া গ্রামের সাত্তার গাজীর ছেলে আলামিন গাজী গত ১০ আগস্ট শনিবার দিবাগত রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় এসিডে দগ্ধ করা হয়। রাতেই তাকে প্রথমে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতাল পরে সেখান থেকে ঐ দিনই খুলনা মেডিকেলর বার্ণ ইউনিটে সর্বশেষ ১৬ আগস্ট শুক্রবার ঢাকা মেডিকেলের বার্ণ ইউনিটে ভর্তি করা হয়। তবে সেখানে ব্যয়বহুল চিকিৎসা কার্যক্রম এগিয়ে নেয়া সম্ভব হচ্ছেনা তার পরিবারের পক্ষে দাবি করেছেন।

ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন আলামিনের সাথে থাকা তার ছোট ভাই রুহুল আমীন জানান, চিকিৎসকরা জানিয়েছেন তার ভাইয়ের অবস্থা ভাল না। এই মূহুর্তে তার সুষ্ঠ চিকিৎসা কার্যক্রম এগিয়ে নিতে অনেক টাকার প্রয়োজন। তাদের যাহা সহয় সম্বল ছিলো তাই ভাইয়ের চিকিৎসা খরচ হয়ে গেছে। বর্তমানে তাদের আর্থিক তার ভাইয়ের চিকিৎসা যেতে ও তাকে বাঁচাতে সমাজের বিত্তবানের সহযোগীতা প্রয়োজন ।

তাকে সাহায্য ০১৭৪২-০৫০২৫২ নম্বরে যোগাযোগ করার জন্য অনুুরোধ করেছেন আলামিনের ভাই ।

প্রসঙ্গত,ঘটনার পর আলামিনের পিতা সাত্তার গাজীর দায়ের করা মামলায় পুলিশ হাসপাতাল থেকে প্রথমে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আলামিনের স্ত্রী আশা ওরফে হাফসাকে আটক করে থানায় নেয়। পরে ঐমামলায় তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করেছেন।

মতামত